ব্রেকিং নিউজ :
December 28, 2016

এশিয়ার কোন দেশে কত কোটিপতি

এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকার মধ্যে জাপানেই কোটিপতির সংখ্যা সবচেয়ে বেশি – প্রায় ১৩ লাখ৷ দেশটিতে একক ব্যক্তিদের মোট ধনসম্পত্তির পরিমাণ ১৫ দশমিক ২৩ ট্রিলিয়ন ডলার, যা কিনা এ অঞ্চলে দ্বিতীয়৷ অপরদিকে জাপানে বিত্ত ও ধনসম্পদ অন্য অনেক দেশের চেয়ে সুষমভাবে বণ্টিত: এ দেশে মিলিওনেয়ার অনেক, কিন্তু মাল্টি-মিলিওনেয়ার ও বিলিওনেয়ারদের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম৷ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতিতে পাওয়া যাবে ৬ লাখ ৫৪ হাজার মিলিওনেয়ার – অর্থাৎ মিলিওনেয়ারের হিসেবে জাপানের পরেই চীনের স্থান৷ একক ব্যক্তিদের সম্পদের ক্ষেত্রে চীন সর্বপ্রথম: ১৭ দশমিক ২৫ ট্রিলিয়ন ডলার৷ অথচ চীনে মাথাপিছু সম্পদ হলো মাত্র ১২ হাজার ৮০০ ডলার, যা কিনা এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশগুলির মধ্যে সপ্তম৷

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে মিলিওনেয়ারদের সংখ্যার হিসেবে অস্ট্রেলিয়া হলো তৃতীয়: এখানে প্রায় ২ লাখ ৯০ হাজার মিলিওনেয়ারের বাস৷ তবে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকদের মাথাপিছু সম্পদ হলো ২০৪,৪০০ ডলার, যা কিনা অঞ্চলের অন্য সব ধনি দেশের থেকে বেশি৷ রিপোর্ট বলছে, অস্ট্রেলিয়ায় জমিজমার দাম এর একটা কারণ হতে পারে৷ ভারতে মিলিওনেয়ারদের সংখ্যা ২ লাখ ৩৬ হাজার হওয়া সত্ত্বেও মাথাপিছু সম্পদের ক্ষেত্রে ভারতকে তালিকার নীচের দিকে পাওয়া যাবে৷ একমাত্র ভিয়েতনাম আর পাকিস্তানে মাথাপিছু সম্পদ ভারতের চেয়ে কম৷ সিঙ্গাপুরের জনসংখ্যা মাত্র ৫০ লাখ, কিন্তু মিলিওনেয়ারের সংখ্যা ২ লাখ ২৪ হাজার, অর্থাৎ ভারতের চেয়ে মাত্র ১২ হাজার কম৷ কাজেই মাথাপিছু সম্পদের ক্ষেত্রে সিঙ্গাপুর যে অস্ট্রেলিয়ার পরেই দ্বিতীয়, তা-তে আশ্চর্য হবার কিছু নেই৷ সিঙ্গাপুরের মাথাপিছু সম্পদ হল ১,৫৮,৩০০ ডলার৷ এশিয়ার আর্থিক কেন্দ্রবিন্দু হংকংয়ে ২ লাখ ১৫ হাজার মিলিওনেয়ারের বাস, কিন্তু এখানে মাল্টি-মিলিওনেয়ারদের সংখ্যা ৯,৫৬০, যা কিনা চীন, জাপান ও ভারতের ঠিক পরেই৷ ২০১৫ সালে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে বিলাসী পণ্যের বাজার এই হংকংয়েই ছিল সবচেয়ে বড়৷ এইটুকু একটা শহরে বছরে প্রায় দু’হাজার কোটি ডলারের পণ্য বিক্রয় সত্যিই চমকে দেবার মতো৷

দক্ষিণ কোরিয়ায় মিলিওনেয়ারদের সংখ্যা এক লাখ ২৫ হাজার, যা কিনা সিঙ্গাপুর বা হংকং-এর চেয়ে কম৷ আগামী দশ বছরে এই সংখ্যা ৫৫ শতাংশ বাড়বে বলে ভবিষ্যদ্বাণী করেছে নিউ ওয়ার্ল্ড ওয়েল্থ-এর রিপোর্ট৷ তাইওয়ান‍ দ্বীপটিতে ৯৮,২০০ মিলিওনেয়ারের বাস৷ ২০০০ সাল যাবৎ এই সংখ্যা বেড়েছে মাত্র ৭৫ শতাংশ, যা কিনা অঞ্চলের অন্যান্য উত্থানশীল দেশের তুলনায় কিছুই নয়৷ এমনকি গত বছরের তুলনায় এই সংখ্যা দশ শতাংশ কমেছে! গত বছর তাইওয়ানে মিলিওনেয়ারদের সংখ্যা ছিল ১০৯,১০০৷  নিউজিল্যান্ডের জনসংখ্যা ৪৫ লাখ, কিন্তু মিলিওনেয়ারের সংখ্যা ৮৯ হাজার৷ মাথাপিছু সম্পদের ক্ষেত্রেও নিউজিল্যান্ডের স্থান অস্ট্রেলিয়া ও সিঙ্গাপুরের পর তৃতীয়৷ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একমাত্র দেশ ইন্দোনেশিয়া, যা এই ধনপতিদের তালিকায় স্থান পেয়েছে৷ ২০১৫ সালের শেষে ইন্দোনেশিয়ায় মিলিওনেয়ারদের সংখ্যা ছিল ৪৮,৫০০, যা কিনা ২০০০ সালের তুলনায় পাঁচগুণ৷ ভারত কিংবা চীনেও মিলিওনেয়ারদের সংখ্যা এত দ্রুত হারে বাড়ছে না৷

সূত্র: নিউ ওয়ার্ল্ড ওয়েলথ ও ডয়েচে ভেলে

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।