ব্রেকিং নিউজ :
January 11, 2017

সাবান বা ফেস ওয়াশে মুখের ত্বকের সর্বনাশ

ফেসিয়াল ক্লেনজার অথবা সাবানের নিয়মিত ব্যবহার মুখের ত্বকের মারাত্মক ক্ষতিসাধন করে। এই ক্ষতির পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পায় শীতকালে সাবান দিয়ে মুখ ধুলে।ফেসিয়াল ক্লেনজার কিংবা সাবানের মূল লক্ষ্যই হল, ত্বক থেকে ধুলো, ঘাম, সেবাম এবং তৈলাক্ত উপাদান দূর করা। সাবান এই কাজ করতে পারে সারফেকট্যান্টস-এর সহায়তায়। সারফেকট্যান্টস হল সারফেস-অ্যাক্টিভ এজেন্ট-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। সাবান দিয়ে মুখ ধোওয়ার সময়ে এই সারফেকট্যান্ট ত্বকে জমে থাকা ধুলো ও তেলকে ঘিরে ফেলে। তার পর তেল ও ধুলোকে ছোট ছোট পার্টিকেলে ভেঙে ফেলে, এবং এর পর যখন জল দিয়ে ধোয়া হয় মুখ, তখন ওই ছোট পার্টিকেলগুলোও ধুয়ে যায়।  হেলথ অ্যান্ড বিউটি ইনস্টিটিউট অফ টরেন্টো-র দ্বারা পরিচালিত স‍াম্প্রতিক একটি গবেষণায়  এসব তথ্য জানা গেছে।

এই সারফেকট্যান্ট হল এমন এক ধরনের রাসায়নিক উপাদান, যা লোশন, পারফিউম, শ্যাম্পু এবং নানাবিধ হেয়ারকেয়ার প্রোডাক্টে মিশ্রিত থাকে। বিবিধ ভূমিকা পালন করে এই উপাদান— যেমন ডিটারজেন্টের হিসেবে, ওয়েটিং এজেন্ট হিসেবে, ফোমিং এজেন্ট হিসেবে, কন্ডিশনিং এজেন্ট হিসেবে কিংবা এমালসিফায়ার অথবা সলিউবিলাইজার হিসেবে। মুখের এপিডারমিসের সব চেয়ে বাইরের স্তর স্ট্র্যাটাম করনিয়ামের নানাবিধ ক্ষতিসাধন করে  রাসায়নিক উপাদান সারফেকট্যান্ট। মূলত এই ধরনের সমস্যাগুলি দেখা যায়— ১. মুখ ধোওয়ার পরে চামড়ায় টান ধরা ২. ত্বকের শুষ্কতা ৩. ত্বকের সুরক্ষাকবচ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া ৪. ত্বক লাল হয়ে যায় ৫. জ্বালা ভাব ৬. চুলকানি। দীর্ঘ দিন ধরে ফেস ওয়াশ বা সাবানে মুখ ধোওয়ার অভ্যাস থাকলে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হবেই। কারণ সারফেকট্যান্ট ত্বকের স্ট্র্যাটাম করনিয়াম, লিপিড এবং পিইচ লেভেলে প্রচুর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। মুখ ধোওয়ার জন্য সব চেয়ে ভাল একেবারে সাদা জলে মুখ ধুতে পারলে। তা না হলে কোনও প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করা যেতে পারে মুখ পরিষ্কার করার জন্য।

সংগৃহীত

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।