ব্রেকিং নিউজ :
January 27, 2017

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বাড়তি ফি আদায়, সাঁড়াশি অভিযানে দুদক!  

রাজধানীসহ সারা দেশের নামিদামি স্কুলগুলো ভর্তি নীতিমালা অমান্য করে অতিরিক্ত ফি আদায় নতুন নয়। বিশেষ কৌশলে অনেক স্কুলই দুটি রসিদের মাধ্যমে এই টাকা নিচ্ছে। অভিভাবকরা প্রতিবাদ করতে গেলে শিক্ষার্থীকে স্কুল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকিও দিচ্ছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বাড়তি ফি আদায় বন্ধে মাঠে নেমেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ প্রসঙ্গে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বলেন,  আমরা বিষয়গুলো নিয়মিত মনিটরিং করছি। কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বাড়তি ফি আদায়ের অভিযোগ পেলে এবং তা প্রমাণিত হলে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক বা প্রতিষ্ঠানের পাঠদানের অনুমতি ও এমপিও বাতিলসহ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বাড়তি ফি আদায় বিষয়টি মনিটরিং করতে মন্ত্রণালয়ের ৬টি মনিটরিং টিম কাজ করছে। অন্যদিকে রাজধানীর ১৫ নামি প্রতিষ্ঠানের সব তথ্য চেয়েছে দুদক। একইভাবে সারা দেশে অতিরিক্ত অর্থ আদায়কারী প্রতিষ্ঠানের নাম ও তালিকা চেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সারাদেশে বিষয়টি মনিটরিং করতে চিঠি দেয়া হয়েছে জেলা প্রশাসকদের।

২০১৬ সালের ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী, ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় অবস্থিত এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাসিক বেতন, সেশন চার্জ ও উন্নয়ন ফি বাবদ সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। আর আংশিক এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এই ফি সর্বোচ্চ আট হাজার টাকা নেওয়া যাবে। ইংরেজি ভার্সনে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা নেওয়া যাবে। তবে এই নীতিমালা অমান্য করে দ্বিগুণ ফি আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে চলতি মাসের মাঝামাঝিতে রাজধানীর ১৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানকে চিঠি পাঠায় দুদক। স্কুলগুলোর জবাবের পরিপ্রেক্ষিতে দুদকের তদন্ত দল স্কুলে স্কুলে গিয়ে অনুসন্ধান শুরু করেছে।

শিক্ষামন্ত্রণালয় রাজধানীর প্রতিষ্ঠানগুলোকে মনিটরিং করতে উচ্চপর্যায়ে ৬টি মনিটরিং টিমগুলো ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে। প্রতি টিমের সদস্যসংখ্যা তিনজন। এতে মন্ত্রণালয় এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) কর্মকর্তারা রয়েছেন। গঠিত টিমগুলোকে মতিঝিল, সবুজবাগ, পল্টন, শাহবাগ থানা, সূত্রাপুর, কোতোয়ালি, লালবাগ, কামরাঙ্গীচর, নিউমার্কেট, রমনা থানা, উত্তরখান, দক্ষিণখান, উত্তরা, বিমানবন্দর, তুরাগ, শাহ আলী থানা, মিরপুর, পল্লবী, শাহআলী, দারুস সালাম থানা, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, আদাবর, তেজগাঁও, ক্যান্টনমেন্ট ও গুলশান থানা, যাত্রাবাড়ী, ডেমরা, কদমতলী, বাড্ডা ও খিলগাঁও থানা এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মনিটরিং করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। মনিটরিং টিমের সমন্বয় করবেন অতিরিক্ত সচিব (বেসরকারি মাধ্যমিক)। কমিটির কর্মকর্তাদের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের তদন্ত প্রতিবেদন একত্রে করে পুস্তকের মতো বাঁধাই করে আগামী ফেব্রুয়ারির মধ্যে মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এই কমিটির একজন সদস্য জানান, আমি এখন পর্যন্ত প্রায় ১৫টি স্কুল পরিদর্শন করে প্রায় প্রতিটি স্কুলে সরকারের নীতিমালার বাইরে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পেয়েছি। আমরা প্রাথমিকভাবে তাদের সতর্ক করেছি।

এদিকে, রাজধানীর যেসব প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে দুদক তদন্ত করছে সেগুলো হলো—মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মতিঝিল, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উদয়ন উচ্চ বিদ্যালয়, গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, অগ্রণী গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ধানমণ্ডি গভর্নমেন্ট বয়েজ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি উচ্চ বিদ্যালয়, সেন্ট জোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, হলিক্রস বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মণিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ এবং রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ।

দুদকের চিঠিতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণিতে শূন্য আসনে শিক্ষার্থী ভর্তির পদ্ধতি ও নীতিমালা, এ বছর ভর্তির আসন সংখ্যা—ইত্যাদি তথ্য সরবরাহ করতে বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, সরেজমিনে গিয়েও এসব তথ্যের পাশাপাশি ভর্তি ফি কত নেওয়া হচ্ছে তারও খোঁজ করছে দুদক। রাজধানীর নামি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে নানা অনিয়ম সম্পর্কে বেশ কিছু অভিযোগের ভিত্তিতেই দুদক এই তদন্তের উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা যায়। দুদক সচিব আবু মো. মোস্তফা কামাল বলেন, আমাদের কাছে সব স্কুলই তথ্য পাঠিয়েছে। এর ওপর ভিত্তি করে তদন্ত দল অনুসন্ধানকাজ শুরু করেছে। ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্তকাজ শেষ করার কথা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে মার্চ মাসে এ ব্যাপারে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/টিএম

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।