ব্রেকিং নিউজ :
August 21, 2017

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই শিক্ষকের ছুটির আদেশ প্রত্যাহার

জাতীয় শোক দিবসে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক মাহবুবুল হক ভূঁইয়াকে (তারেক) তার বিভাগের প্রথম ব্যাচের ক্লাস নেওয়ার জন্য এক মাসের ছুটিতে পাঠিয়ে ছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু এই বিষয়ে শিক্ষক ও ছাত্রদের আন্দোলন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যাপক সমালোচনার পর অবশেষে সেই শিক্ষকের ছুটির আদেশ প্রত্যাহার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আজ সোমবার ওই ছুটির আদেশ প্রত্যাহার করা হয়।

এর আগে গত ১৭ আগস্ট বৃস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্টার মোঃ মজিবুর রহমান মজুমদারের স্বাক্ষরিত  অফিস আদেশে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক মাহবুবুল হক ভূঁইয়াকে লেখা হয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০১৭ উপলক্ষে বিশ্ব বিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত কর্মসূচি চলাকালে আপনার ক্লাস নেওয়াকে কেন্দ্র করে বিশ্ব বিদ্যালয়ের বিদ্যমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে আপনাকে আগামী ২০/৮/২০১৭ খ্রি. তারিখ থেকে ১৯/০৯।২০১৭ খ্রি. পর্যন্ত কর্তৃপক্ষের আদেশক্রমে ছুটি প্রদান করা হলো।

যদিও এর ১৫ই আগস্ট ক্লাস নেওয়ার কথা অস্বীকার করেছিলেন মাহবুবুল হক ভূঁইয়া। তিনি বলেন, ‘মঙ্গলবার যা ঘটেছে সেটি এরকম, আমি সকালে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ক্যাম্পাসে আসি। এরপর যথারীতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে ফুল প্রদান শেষে ওইখানেই দাঁড়িয়ে ছিলাম। এর মধ্যে কিছু স্টুডেন্ট এসে বলে, তাঁরা কিছু বিষয় বুঝছে না, একটু সময় দিতে। আমি তাঁদের ডিপার্টমেন্টে আমার রুমের সামনে গিয়ে দাঁড়াতে বলি। এর কিছুক্ষণ পর ডিপার্টমেন্টে গিয়ে দেখি, ওঁরা (শিক্ষার্থী) সংখ্যায় প্রায় ১০-১২ জন। আর এর মধ্যেই আমার আরেকজন সহকর্মী অন্য ডিপার্টমেন্টের আরো দুজন সহকর্মীসহ রুমে আসেন। এ অবস্থায় তাঁদের সঙ্গে ওই রুমে বসে কথা বলা সম্ভব ছিল না, কারণ রুমে এত মানুষের বসার জায়গা ছিল না। আমি স্টুডেন্টদেরকে পাশের একটি রুমে বসতে বলি এবং নিজেও একটু পরে সেখানে গিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করি। এর পরিপ্রেক্ষিতেই ক্লাস নেওয়ার অভিযোগ তোলা হচ্ছে।’

‘আদতে ওই ব্যাচের ক্লাস অনেক আগেই শেষ। সেমিস্টার ক্যালেন্ডার এবং এরই মধ্যে শুরু হওয়া সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার রুটিন সে প্রমাণই বহন করছে। সুতরাং ক্লাস নেওয়ার অভিযোগ একেবারেই সঠিক নয়। এখানে একটি ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে।’

কিন্তু ওই শিক্ষকের কথার তোয়াক্কা না করে ও তাঁকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে শুধু বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ক্লাস নেওয়ার অভিযোগে মাহবুবুল হক ভূঁইয়াকে এক মাসের ছুটি দেওয়া হয়।

এরপর শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের এ সিদ্ধান্ত একপক্ষের দাবি করে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে শিক্ষক সমিতি। শিক্ষককে অন্যায়ভাবে ব্যক্তিগত ক্ষোভের বশবর্তী হয়ে উপাচার্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন- দাবি করে গত কয়েকদিন ধরে আন্দোলন করে আসছিলেন শিক্ষক সমিতি ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের শিক্ষক নেতারা। গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরাও ক্লাস বর্জন করে আন্দোলন করে আসছিলেন। শুধু তাই নয়, এই নিয়ে গত কয়েকদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। অবশেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন প্রভাষক মাহবুবুল হক ভূঁইয়ার ছুটির আদেশ প্রত্যাহার করে।

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ bangladesh24online.news@gmail.com

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।