ব্রেকিং নিউজ :
November 10, 2017

বোরকা-নিকাবে নিষেধাজ্ঞা : বেকায়দায় মুসলিম নারীরা

কানাডার কুইবেকে প্রদেশে বোরকা-নিকাবে নিষেধাজ্ঞায় বেকায়দায় কানাডার মুসলমানেরা। সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নারীদের জন্য বোরকা ও নিকাব পরা নিষিদ্ধ ঘোষণা করে একটি আইন পাস করা হয়েছে। যোগাযোগ ও নিরাপত্তা ইস্যুকে মাথায় রেখে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কুইবেক ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি।

তবে কানাডিয়ান মুসলমানদের কয়েকটি দল এই সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করার আবেদন জানিয়েছে। তাদের মতে এই সিদ্ধান্তটি বৈষম্যপূর্ণ, অসাংবিধানিক ও অপ্রয়োজনীয়। এর ফলে মুসলমানদের নাগরিক ও ধর্মীয় অধিকার লংঘিত হয়েছে। কানাডিয়ান সিভিল লিভার্টিজ এসোসিয়েশন (সিসিএলএ) এবং ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ কানাডিয়ান মুসলিম কুইবিক উচ্চতর আদালতে গত মাসে পাসকৃত এ সংক্রান্ত আইনের ব্যাপারে আপীল করেছে।

সারা ফেইথ জুইবেল বলেন,একজন নারী কী পোষাক পরিধান করবে তা সরকার ঠিক করে দেয়া উচিৎ নয়। তার পছন্দ, রুচি, বিশ্বাস অনুযায়ী কাজের স্বাধীনতা থাকতে হবে। ওয়ারদা নাইলি মনে করেন এই আইন পাসের পর যারা হিজাব বা নিকাব পরিধান করতো তারা দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিকে পরিণত হয়েছে।

কুইবেক ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে ‘বিল সিক্সটি-টু’ নামের এই আইনটি পাশ হয় ৬৬-৫১ ভোটে। এই আইনটি পাশের মাধ্যমে সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নারীদের বোরকা ও নিকাব পরা নিষিদ্ধ করে তাদের মুখ দেখানো বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

২০১৪ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা লিবারেলরা দু’বছর আগেই এই বিলটি উত্থাপন করেছিল। আর এখন এটি পাস হবার কারণে-প্রদেশের আমলা, পুলিশ কর্মকর্তা, বাস চালক, ডাক্তার, মিডওয়াইভ এবং দাঁতের ডাক্তারসহ সরকারি যে কোনো প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিদের মুখ অনাবৃত থাকতে হবে। এছাড়া প্রদেশের যেসব শিশুকেন্দ্রে ধর্মীয় শিক্ষা দেয়া হতো সেই সেবাও বন্ধ হয়ে যাবে।

তবে কুইবেকের ‘বিল সিক্সটি-টু’ নামের এই আইনটিতে কোথাও মুসলিমদের বিশ্বাসের কথা উল্লেখ নেই। সরকার বলছে, কোনো ধরনের আচ্ছাদন বা আবরণ মুখে থাকবে না এমনটাই আইনে বলা হচ্ছে, তার অর্থ এই নয় যে মুসলিমদের টার্গেট করে এমনটা করা হয়েছে।

তবে এই আইনের প্রভাব মুসলিম নারীদের ওপরেই সবচেয়ে বেশি পড়েছে। এটি মুসলিম নারীদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ। কুইবেকে কত নারী নিকাব পরে সেই বিষয়ে এখনও স্পষ্ট কোনো তথ্য নেই। তবে ২০১৬ সালের এক জরিপের তথ্য অনুযায়ী- কানাডার ৩ শতাংশ মুসলিম নারী চাদর পরে এবং ৩ শতাংশ নারী নিকাব পরে।

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।