ব্রেকিং নিউজ :
November 12, 2017

হঠাৎ গণপরিবহন বন্ধ, বিপাকে যাত্রীরা

পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই সকাল থেকে রাজধানীর কাছের জেলাগুলো থেকে ঢাকামুখী সব গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। এর ফলে গাজীপুর, মুন্সীগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ ও সোনারগাঁও থেকে কোনো গণপরিবহন চলেনি। উপায় না পেয়ে অনেকেই সিএনজি ও রিকশা ভাড়া করে গন্তব্যস্থলে যাচ্ছেন।

এদিকে অজ্ঞাত কারণে পরিবহন বন্ধ থাকার কারণ জানা যায়নি। তবে অনেকে অভিযোগ করেছেন, ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির সমাবেশকে ঘিরেই গণপরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে এক শ্রেণির বাস মালিকরা।

অন্যদিকে, সপ্তাহের কর্মদিবসের প্রথম দিন রাজধানীর অভ্যন্তরে বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী গণপরিবহনগুলোর সংখ্যাও হঠাৎ করে কমে গেছে। ফলে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ভোগান্তিতে পড়েছে অফিসগামী মানুষ। রবিবার সকাল থেকেই রাজধানীর ফার্মগেট, বিজয় সরণি, গাবতলী, শনির আখড়া, যাত্রাবাড়ী, মিরপুর, উত্তরাসহ বিভিন্ন এলাকায় চলাচলকারী গণপরিবহনের সংখ্যা কমে যায়।

পরিবহনের সংখ্যা কমে যাওয়ায় বিভিন্ন বাসস্টপে অপেক্ষা করতে দেখা যায় শত শত মানুষকে। কিন্তু ভিড়ের চাপে অনেকেই পরিবহনে উঠতে পারছেন না। ফলে তারা পায়ে হেঁটে এবং রিকশা ভাড়া করে গন্তব্যস্থলে বা অফিসে গিয়েছেন।

অনেকে ফেইসবুকে ফাঁকা রাস্তার ছবি শেয়ার করছেন। অনেকে আবার রাজধানীতে পরিবহন সংকটের কারণ জানতে চান। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ বিএনপির সমাবেশ ঘিরেই এই অঘোষিত ‘ধর্মঘট’ চলছে বলে জানান অনেকে।

অন্যদিকে বিএনপির নেতাকর্মীরা অভিযোগ করেন, বি এন পির সমাবেশ নস্যাৎ করতে অঘোষিত পরিবহন ধর্মঘট ডেকেছে এক শ্রেণির বাস মালিকরা। একসঙ্গে ব্যাপক ধরপাকড় শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তারা বলেন, গণপরিবহন বন্ধ থাকলে প্রয়োজনে পায়ে হেঁটে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যাব। গণ গ্রেপ্তার করে বিএনপিকে দমিয়ে রাখা যাবে। আমাদের নেতাকর্মীদের অনেকে আগে থেকেই ঢাকায় অবস্থান করছেন। তাই কোনো প্রতিবন্ধকতাই আমাদের রুখতে পারবে না।

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।