ব্রেকিং নিউজ :
April 8, 2016

নিঝুম দ্বীপে ২৪ ঘণ্টা, আপনিও ভ্রমণ করতে পারেন

মনোয়ার হোসেন মাসুদঃ জাতীয় উদ্যান নামে খ্যাত নিঝুম দ্বীপ, বাংলাদেশের পর্যটন কেন্দ্র গুলোর মধ্যে অন্যতম। পূর্ব দিকে মেঘনা নদী, উত্তরে হাতিয়া, পশ্চিমে মনপুরা দ্বীপ এবং দক্ষিনে বিস্তীর্ণ বঙ্গোপসাগর। এর মাঝখানে ছোট্ট দ্বীপ যা নিঝুম দ্বীপ বা জাতীয় উদ্যান নামে পরিচিত। কেওড়া বনের মাঝখানে হরিণের ছুটে চলার মনোরম দৃশ্য দেখতে হলে আপনাকে একবার ঘুরে যেতে হবে এই নিঝুম দ্বীপ থেকে। বিকেলে সূর্যাস্তের পরশা সাজিয়ে আপনার অপেক্ষায় বঙ্গোপসাগর এবং মেঘনা নদীর মোহনা। রাতে খাবারের তালিকায় থাকতে পারে ইলিশ, চিংড়ি, কোরালসহ বিভিন্ন ধরনের দেশীয় মাছ।

যেভাবে যাবেন নিঝুম দ্বীপেঃ

নিঝুম দ্বীপ যাবার দু’টো পথ আছে আপনাকে একটি পথ অবলম্বন করতে হবেঃ

DSC_0136

আপনি যদি জাহাজে করে যেতে চান তাহলে আপনাকে যেতে হবে সদর ঘাট সেখান থেকে ফারহান নামের জাহাজে করে হাতিয়া যেতে হবে। জাহাজে উঠে আপনি  দু’ধরনের টিকিট পাবেন বসার এবং শোয়ার। বসার সিটের জন্য আপনাকে দিতে হবে ৩০০ টাকা এবং শোয়ার সিটের জন্য ১২০০ থেকে ৩৫০০ টাকা গুনতে হবে।

DSC_0234

 জাহাজে উঠে আপনি ছাদে বসে নদীর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন।

 DSC_0167

এই ভ্রমণে রাতের মেঘনা নদী আপনার ভিতরে এক নতুন অনুভূতির জন্ম দিবে। আপনার জাহাজের পাঁশ ঘেঁসে যাওয়া অন্য জাহাজগুলো দেখতে মনে হতে পারে একটি ভ্রাম্যমান বাড়ি।

 DSC_0203

পুব আকাশে ভোরের সূর্য আপনাকে হাতছানি দিয়ে ডাকবে। মেঘের ফাঁক দিয়ে সূর্যের উঁকি দেয়ার দৃশ্য দেখলে আপনার মনে হবে আপনে হয়ত কোন রূপকথার রাজ্যে আছেন, ঠিক যেন রং তুলিতে আঁকা ছবি।

DSC_0190

আধো আলো আধো ছায়া ঘেরা মনপুরা দ্বীপ ভোলার মত না।

DSC_0248

সব শেষে আপনি পৌঁছাবেন  হাতিয়ার তমরদ্দি ঘাঁটে।

20160331_105229

তমরদ্দি ঘাঁট থেকে বাস, বেবি ট্যাক্সি অথবা মটোর বাইক ভাড়া করে আপনাকে যেতে হবে খেয়াঘাটে।

 DSC_0268

খেয়াঘাঁটে  পৌঁছানোর পর  আপনাকে খেয়ার জন্য কিছু সময় অপেক্ষা করতে হতে পারে।

DSC_0572

 খেয়াঘাঁটে খেয়া পাড়ি দিলেই আপনি পৌঁছে যাবেন জাতীয় উদ্যান বা নিঝুম দ্বীপ। সেখানে থাকার জন্য আপনি বিভিন্ন দামের আবাসিক হোটেল পাবেন।

DSC_0366

 নিঝুম দ্বীপে আপনার ঘুড়াঘুড়ির  সঙ্গি(গাইড) হিসেবে পাবেন ছোট ছোট শিশুদের যারা আপনাকে নিঝুম দ্বীপ ঘুরিয়ে দেখাবে।

2

বনে ঢুকতে হলে আপনাকে কিছু সাঁকো পাড়ি দিতে হবে, সেই সাথে পাড়ি দিতে হবে অনেক কেওড়া গাছের শাঁসমূল।

Untitled-1

বনে হরিণ দেখতে হলে আপনাকে নিঃশব্দে হেঁটে যেতে হবে বনের পথ ধরে।

DSC_0297

নিঝুম দ্বীপের সমুদ্র সৈকতে আপনি প্রশান্তির নিঃশ্বাস নিতে পারবেন। ভাগ্য ভালো হলে দেখা মিলতে পারে আকাশে ডান মেলে উড়ে বেড়ানো  গাঙ্গচিল, শঙ্খচিল এবং লাল কাঁকড়ার।

২) আপনি আবার ফিরে আসার জন্য অবলম্বন করতে পারেন দ্বিতীয় পথটিঃ

DSC_0597

সেই ক্ষেত্রে আপনাকে পুনরায় খেয়াঘাঁট যেতে হবে। সেখানে আপনি ট্রলার অথবা খেয়া পাড়ি দিতে পারেন। ট্রলারে করে আপনি সোজা হাতিয়ার নলচিরা ঘাঁটে এসে সেখান থেকে সি-ট্র্যাক, টলার অথবা স্পীড-বোটে করে চলে আসতে পারেন নোয়াখালীতে। তারপর বাস ধরে ঢাকা।

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ bangladesh24online.news@gmail.com

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।