ব্রেকিং নিউজ :
August 8, 2016

পানামা পেপারসে আসা ৩৯ বাংলাদেশির ব্যাংক হিসাব শনাক্ত

বিশ্ব তোলপাড় করা অর্থ পাচার-সম্পর্কিত পানামা পেপারসে আসা নামের মধ্যে ৪৩ বাংলাদেশী শনাক্ত হয়েছে। এদের অধিকাংশই ব্যবসায়ী।  ধারণা করা হচ্ছে, তারা দেশ থেকে বিরাট অংকের অর্থ পাচার করেছেন। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক গোয়েন্দা ইউনিট  (বিএফআইইউ) এদের প্রকৃত পরিচয়, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর চূড়ান্ত করেছে। এর মধ্যে ব্যাংক হিসাব চিহ্নিত করা হয়েছে ৩৯ ব্যক্তি ও তাদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের। পাশাপাশি অর্থ পাচারে অভিযুক্ত এসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের লেনদেন এবং বৈদেশিক বাণিজ্য-সম্পর্কিত তথ্য খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  অভিযুক্ত ব্যক্তিদের ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানের ওপর নজরধারীর পাশাপাশি আগের লেনদেন তদন্ত করতে ৬টি অনুসন্ধান কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এসব কমিটি পানামা পেপারসে আসা ব্যক্তিদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম ও আয়কর-সম্পর্কিত তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাছে।  পাশাপাশি মেয়াদোত্তীর্ণ বিল অব এন্ট্রি এবং রফতানি মূল্য অপ্রত্যাবাসিত আছে কিনা, তা জানতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখার কাছে তথ্য চেয়েছে তদন্ত কমিটি।

জার্মান পত্রিকা জিটডয়েচ সাইতং ও ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টসের (আইসিআইজে) মোসাক ফনসেকার প্রায় দেড় কোটি নথি প্রকাশ করেছিল। ফাঁস হওয়া এসব গোপন নথিপত্র ‘পানামা পেপারস’ নামে অভিহিত করা হয়। বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানসহ ক্ষমতাধর সব রাজনীতিবিদ রয়েছেন এ তালিকায়। রয়েছেন কয়েকজন স্বৈরশাসকও। এ নথি ফাঁসের পর  এসব প্রভাবশালীদের সম্পদ আড়াল, ট্যাক্স ফাঁকি আর অর্থ পাচার বিশ্বের সামনে উন্মুক্ত হয়ে পড়ে।

এর মধ্যে বেরিয়ে এসেছে বাংলাদেশী প্রভাবশালী ব্যক্তিদের নামও। যারা বিভিন্ন অফসোর কোম্পানির নামে বিদেশে টাকা পাচার করেছেন বলে পানামা পেপারসে বলা হয়েছে, তালিকায় আছেন- আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ, তার স্ত্রী নিলুফার জাফর এমপি ও তার পরিবার, সামিট ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড মার্কেন্টাইল কর্পোরেশন প্রাইভেটের চেয়ারম্যান আজিজ খান, তার স্ত্রী আঞ্জুমান আজিজ খান, কন্যা আয়েশা আজিজ খান, চেয়ারম্যানের ভাই জাফর উমেদ খান, আজিজ খানের ভাজিতা মো. ফয়সল করিম খান। নামের তালিকায় আছেন ইউনাইটেড গ্রুপের হাসান মাহমুদ রাজা, খন্দকার মইনুল আহসান (শামীম), আহমেদ ইসমাইল হোসেন ও আখতার মাহমুদ। এতে নাম আছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ফার্মাসিউটিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক সভাপতি এএমএম খান, মোমিন টি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজমল মইন, পাট ব্যবসায়ী দিলিপ কুমার মোদি, সি পার্ল লাইন্সের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ সিরাজুল হক, বাংলা ট্রাক লিমিটেডের মো. আমিনুল হক, নাজিম আসাদুল হক ও তারিক একরামুল হক, ওয়েস্টার্ন মেরিনের পরিচালক সোহেল হাসান, মাসকট গ্রুপের চেয়ারম্যান এফএম জুবাইদুল হক শেতু কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহতাবুদ্দিন চৌধুরী, স্কার্ফ এবং অমনিকেম লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইফতেখারুল আলম, তার পুত্রবধূ ফওজিয়া, আবদুল। এছাড়া মোনেম লিমিটেডের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএম মহিউদ্দিন আহমেদ, তার স্ত্রী আসমা মোনেম, অনন্ত গ্রুপের শরিফ জাহির। নথিতে বাংলাদেশের অন্যরা হচ্ছেন- এএফএম রহমাতুল্লাহ বারী, ক্যাপ্টেন এমএ জাউল, সালমা হক, কাজী রায়হান জাফর, মির্জা এম ইয়াহ ইয়া, মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, সৈয়দা সামিনা মির্জা ও জুলফিকার হায়দার। এছাড়া বিবিটিএল নামে নতুন একটি কোম্পানির নামও জানা গেছে।

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/এসএম

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ bangladesh24online.news@gmail.com

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।