ব্রেকিং নিউজ :
August 26, 2016

‘ফাঁসি দিক, জেল দিক আপত্তি নাই’

0030302_kalerkantho-16-8-26নেশাখোর যুবক ছেলের অত্যাচারে হাত-পা বেঁধে পুলিশে দিলেন মা। ২৪শে আগস্ট যশোরে স্বজনদের সহযোগিতায় হাত-পা বেঁধে ছেলেকে থানায় পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

ওই মা বলেন, ‘আমি ওর মা। কিন্তু আর সহ্য করতে পারছি না। নেশার জন্য ও অমানুষ হয়ে গেছে। আপনাদের কাছে ওকে ধরে নিয়ে এসেছি। আপনারা ওর বিচার করেন।’ এক নেশাগ্রস্ত ছেলের অসহায় মায়ের আকুতি এটি।

সূত্র মতে, মাদকাসক্ত ওই যুবকের নাম কেরামত আলী ছোট্টু। নেশার টাকার জন্য মাকে মারধর করতো। এক সময় মা বাধ্য হয়ে সহায়-সম্পদ বিক্রি করে ছেলের হাতে টাকা তুলে দিয়েছেন। তার পরেও সেই ছেলের চাহিদা কমেনি, বরং দিনে দিনে ছেলে আরও বেপরোয়াই হয়েছে। যার ফলে তিনি স্বজনদের সহযোগিতায় ছেলেকে দড়ি দিয়ে বেঁধে ভ্যানে করে যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানায় নিয়ে আসেন। থানার ওসির কাছে ছেলেকে বুঝিয়ে দিয়ে তাঁর বিচার দাবি করেন।

মা রাহেলা বেগম বলেন, আমার ছেলে ভালো হবে, নেশার পথ থেকে ফিরে আসবে, এ জন্য তাঁকে বিয়ে দিয়েছিলাম, তাতে লাভ হয়নি। রাহেলা বেগম আরও বলেন, ‘আমি থানায় এসেছি পুলিশ তাকে ফাঁসি দিক জেল দিক তাতে আমার কোনো আপত্তি নাই।’

প্রতিবেশীরা বলেন, ছোট্টু ১৪ বছর বয়সে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। এখন সে প্রতিনিয়ত ইয়াবা সেবন করে। এলাকার মাদক ব্যবসায়ীরা তাঁকে দিয়ে কিছুদিন ইয়াবা বড়িও বিক্রি করিয়েছে। ইয়াবার টাকা জোগাড়ের জন্য ছোট্টু বাড়ির বাসনকোসন পর্যন্ত বিক্রি করে দিয়েছে। পাশাপাশি গ্রামেও তিনি প্রতিনিয়ত নেশার টাকা জোগাড়ের জন্য চুরিও করতো। ছোট্টুর বিষয়ে যশোরের কোতোয়ালি থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন বলেন, ‘তাঁর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’

বাংলাদেশ২৪অনলাইন/টিএম

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।