ব্রেকিং নিউজ :
August 26, 2016

বছর শেষে টাইগারদের শুরু!

অবশেষে বছরের প্রথম ওয়ানডে ও টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশশামিম আহম্মেদঃ ২০১৬ সালকে বিদায় জানিয়ে মাত্র চার মাস পর বরণ করে নেওয়া হবে ২০১৭’কে। বিশ্ববাসীর কাছে বছরটা এখন শেষের পথে হলেও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জন্য শুরু। কারণ আগামী ৭ অক্টোবর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বছরের প্রথম ওয়ানডে ও টেস্ট ম্যাচ খেলবে টাইগার বাহিনী।

২০১৫ সালে যে দলটি একের পর এক চমক দেখিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বকে। যাদের প্রতিটি সাফল্যে অবাক হয়েছে স্বয়ং ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি। সেই দলটি ২০১৬ সালে প্রথম ওয়ানডে ও টেস্ট ম্যাচ খেলার জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ১০টি মাস। যেখানে ইতোমধ্যে খেলার মধ্যে রয়েছে আইসিসি’র প্রায় সকল সদস্য দেশগুলো। এমনকি ব্যস্ত সিডিউলের মধ্যেও ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের নিচে থাকা পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং জিম্বাবুয়ে।

অথচ, ২০১৫ সালে আইসিসি’র সেরা সফল দলের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল দ্বিতীয়। প্রথম স্থানে ছিল বিশ্বকাপ জয়ী অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপের কোয়াটার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে বিতর্কিত ম্যাচে হেরে থমকে থাকেনি দলটি। বরং আরও ভয়ানক হয়ে উঠে মাশরাফি বাহিনী। ঘরের মাঠে পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়েকে ওয়ানডে ক্রিকেটেতে হারায় টাইগার বাহিনী। শুধু ওয়ানদের ক্রিকেটে সাফল্ল্যের পাল্লা ভারি হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। টেস্ট ক্রিকেটে পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ড্র করেছিল মুশফিক বাহিনী।

ওই সময়ে বাংলাদেশ সফরে আশার কথা ছিল অজি ক্রিকেট দলের। তবে নিরাপত্তা কারণ দেখিয়ে সিরিজটি স্থগিত করেন তারা। যদিও এর পরে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) সফলভাবে আয়োজন করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এমনকি ২০১৬ শুরুতেও এশিয়া কাপও সফলভাবে আয়োজন করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ।

২০১৫ স্বপ্নিল একটা বছর পার করার পরও বাংলাদেশ সিরিজ নিয়ে নিরাপত্তা ইস্যুতে পানি কম ঘোলা করেনি ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগেছেন বহুদিন। অবশেষে নিরাপত্তা প্রতিনিধি পাঠিয়ে সম্মতি হয়েছেন বাংলাদেশ সফরের জন্য। শেষ মুহূর্তে আসেও তাঁদের এই সঠিক সিদ্ধান্তে ক্রিকেট বাংলাদেশীদের পক্ষ থেকে ‘ইসিবি’ কে স্বাগত জানায়।

অবাক করার বিষয় হল, বাংলাদেশে কিছু বিচ্ছিন ঘটনায় পান থেকে চুন পড়লেই নিরাপত্তা অজুহাত দেখিয়ে পিছু হাঁটে ক্রিকেট মোড়লরা। অথচ ফ্রান্সে বড় বড় কিছু সন্ত্রাসী হামলার পরও ইউরো খেলতে হাজির হয়েছে ইউরোপের সেরা দল গুলো। ওই ভিড়ে যুক্ত হয়েছিল ইংল্যান্ড ফুটবল দলও। যদিও ইউরোতে বেদনা ছাড়া কিছুই জোটেনি তাদের। তারপরও সাহসিকতার জন্য তারা বাহ পাবার যোগ্য।

পরিশেষে, আমরা এখনও ক্রিকেট বিশ্বে আন্ডারডগ। বারবার নিরাপত্তা ইস্যু দেখিয়ে সিরিজ প্রত্যাহারের দায়ভার চাপিয়ে দেওয়া হয় আমাদের উপর। অথচ অস্ট্রেলিয়া কিংবা ভারতে আরও বড় কোন ঘটনা ঘটলেও পিছনে হটার কথা চিন্তা করে না কোনো দেশ। যেমনটা হয়েছে ইউরো কাপে। শত ঝুঁকির মাঝে ফ্রান্সে উপস্থিত হয়েছে সবাই।

প্রতিবেদনটি সম্পূর্ণ লেখকের ব্যক্তিগত মতামত। ‘বাংলাদেশ২৪অনলাইন’ কর্তৃপক্ষ কোন অবস্থাতেই দায়ী নয়।

একই রকম সংবাদ

সম্পাদকঃ আলী অাহমদ
যোগাযোগঃ ১৪৮/১, গ্রীণ ওয়ে, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০১৭৯৪৪৪৯৯৯৭-৮
ইমেইলঃ [email protected]

Copyrıght Bangladesh24online @ 2015.               এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।